Home ত্রিপুরা দীর্ঘদিন যাবত গান্ধীগ্রাম এলাকায় দেহে ক্ষত নিয়ে ঘোরাফেরা করছিল এক ভবঘুরের ষাঁড়।

দীর্ঘদিন যাবত গান্ধীগ্রাম এলাকায় দেহে ক্ষত নিয়ে ঘোরাফেরা করছিল এক ভবঘুরের ষাঁড়।

by admin
0 comment 65 views

প্রতিনিধি মোহনপুর:-দীর্ঘদিন যাবত গান্ধীগ্রাম এলাকায় দেহে ক্ষত নিয়ে ঘোরাফেরা করছিল এক ভবঘুরের ষাঁড়। স্থানীয়দের সহযোগিতায় প্রাণিসম্পদ বিকাশ দপ্তরের চিকিৎসক এবং অন্যান্য কর্মীরা প্রাথমিক চিকিৎসা প্রদান করে এই ষাঁড়টিকে। এলাকার যুবকরা সক্রিয়ভাবে উদ্যোগ নিয়েছে এই ষাঁড়টিকে সুস্থ করে তোলার জন্য।

দেহে ক্ষত নিয়ে পথে-ঘাটে ঘোরাফেরা করছিল এই ষাঁড়। এই বিষয়টি স্থানীয়দের নজরে আসতেই উদ্যোগ নেয়া হয় চিকিৎসা পরিষেবা প্রদানের। যথারীতি যোগাযোগ করা হয়েছে প্রাণী সম্পদ বিকাশ দপ্তরের সাথে। এরই মধ্যে ফোন করা হয় হেল্পলাইন নাম্বার ১৯৬২-তে। এরপরই বুধবার উদ্যোগ গ্রহণ করা হয় আহত ষাঁড়কে চিকিৎসা করার জন্য।এই দিন গান্ধীগ্রাম এলাকায় এলাকার প্রায় ৩০ থেকে ৩৫ জন যুবক একত্রিত হয়ে ষাঁড়কে নিয়ন্ত্রণ আনার চেষ্টা করেন। তারপরেই প্রাণিসম্পদ বিকাশ দপ্তরের চিকিৎসকেরা চিকিৎসা পরিষেবা দিতে শুরু করে আহত ষাঁড়টিকে। প্রাথমিক পর্যায়ে এদিন চিকিৎসা পরিষেবা প্রদান করা হলেও প্রাণ সম্পদ বিকাশ দপ্তরের সহ অধিকর্তা ডঃ সম্রাট চৌধুরী বলেন স্থানীয়দের সহযোগিতায় প্রাথমিক চিকিৎসা প্রদান করা সম্ভব হয়েছে। তবে প্রয়োজন নিয়মিত চিকিৎসা পরিষেবা প্রদানের। তিনি পরামর্শ দেন এই ষাঁড়টিকে গোশালায় রেখে নিয়মিত চিকিৎসা পরিষেবা প্রদান করলে তার স্বাস্থ্যের জন্য অত্যন্ত ভালো হবে। তবে এই দিন স্থানীয় যুবকরা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে যেভাবে এই ষাঁড়কে কাবু করেছে তাঁর জন্য আদর্শ প্রাণী প্রেমী হিসেবে স্থানীয়দের ধন্যবাদ জানিয়েছেন ডক্টর সম্রাট চৌধুরী।

Related Post

Leave a Comment