Home ত্রিপুরা জায়গা সম্পত্তি নিয়ে দুই পরিবারের মধ্যে বিবাদ তুঙ্গে, রক্তারক্তি ক্ষতবিক্ষত অবস্থায় একজনকে শিলচর পাঠানো হলো।

জায়গা সম্পত্তি নিয়ে দুই পরিবারের মধ্যে বিবাদ তুঙ্গে, রক্তারক্তি ক্ষতবিক্ষত অবস্থায় একজনকে শিলচর পাঠানো হলো।

by admin
0 comment 97 views

ধর্মনগর প্রতিনিধি।
জায়গা সম্পত্তি নিয়ে বিবাদকে কেন্দ্র করে সোমবার বিকেলে ঘটে গেল এক রক্তারক্তি কান্ড। শাবল দিয়ে মাথা ফাটিয়ে রক্তাক্ত অবস্থায় প্রথমে ধর্মনগর হাসপাতালে পরে সেখান থেকে শিলচর মেডিকেল কলেজের উদ্দেশ্যে প্রেরণ করা হয়। ঘটনার বিবরণে জানা যায় যুবরাজনগর ব্লকের আওতাধীন ঢ়ুপিরবন্ধ গ্রাম পঞ্চায়েতের বাসিন্দা নিজেদের মধ্যে ৭- ৮ বছর যাবত জায়গা সম্পত্তি নিয়ে ভেজাল চলছিল। সোমবার বিকেলের দিকে মইনুল হক তার ছেলে রাউল উদ্দিন এবং স্ত্রীকে নিয়ে যখন বাড়িতে ফিরছিল তখন জসিম মিয়ার বাড়ির সামনে আসতে তারা গাড়ি আটকে মইনুল হককে নামিয়ে শাবল দিয়ে মাথায় এবং শরীরের বিভিন্ন অঙ্গে আঘাত করে। পাশাপাশি মইনুল হকের সাথে থাকা আড়াই লক্ষ টাকা লুট করে নিয়ে যায় এবং তার মোবাইলটিও নিয়ে যায়। মইনুল হকের ছেলে রাহুল উদ্দিন কে এবং তার মাকেও মারধর করে। রাহুল উদ্দিন তার বাবাকে ধর্মনগরের উত্তর জেলা হাসপাতালে নিয়ে আসে সেখান থেকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় থাকায় কর্তব্যরত চিকিৎসকরা মইনুল হককে বহি রাজ্যে প্রেরণ করে। এদিকে রাউল উদ্দিন জানায় যারা তাদেরকে মারধর করেছে তারা তার পিসির ছেলে এবং অন্যান্য আত্মীয়-স্বজন। এই মর্মে রাহুল উদ্দিন ধর্মনগর পুলিশ স্টেশনে একটি মামলা দায়ের করেছে। তার পিসির ছেলে জসিম মিয়া ,হাসিম মিয়া, শাহারুল ইসলাম, হাসনা বেগম, জইরুন বিবি এবং হিরা মিয়া একত্রিত ভাবে তাদের ওপর আক্রমণ করে এবং আড়াই লক্ষ টাকা লুট করে নিয়ে যায় বলে অভিযোগ জানিয়ে থানায় মামলা করে। পুলিশ এলাকা থেকে রক্তাক্ত শাবল এবং জামাকাপড় উদ্ধার করে থানায় নিয়ে এসেছে। তাছাড়া অভিযোগ করা বিবাদীদের এনে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করেছে। এলাকার পরিস্থিতি থমথমে। রাউল উদ্দিনের কথামতো তার পিসির ছেলে এবং অন্যান্যদের আদালতে যাওয়ার কথা ছিল কিন্তু তারা আদালতে না গিয়ে ইচ্ছাকৃতভাবে তাদেরকে আক্রমণের পরিকল্পনা নিয়ে পূর্ব থেকে বসেছিল।

Related Post

Leave a Comment