Home বিনোদন শান্তির বাজার পূর্ত দপ্তরের অভাবনীয় উদ্দ্যোগে! মাধ্যমিকে সেরা দশের মধ্যে স্থানাধিকারী ৫ জন কে সংবর্ধনা প্রধান।

শান্তির বাজার পূর্ত দপ্তরের অভাবনীয় উদ্দ্যোগে! মাধ্যমিকে সেরা দশের মধ্যে স্থানাধিকারী ৫ জন কে সংবর্ধনা প্রধান।

by admin
0 comment 47 views

শান্তিরবাজার প্রতিনিধি :পূর্ত দপ্তর বলতেই সকলে বুঝে রাস্তা, ব্রীজ ও সরকারি নতুন ভবন নির্মানকরা। শান্তির বাজার পূর্ত দপ্তর সর্বদা নিষ্ঠার সহিত কাজ করার পাশাপাশি সাধারন গরীব অংশের লোকজনদের পাশে দারাচ্ছে। শান্তির বাজার পূর্ত দপ্তরের উদ্দ্যোগে ত্রিপুরা মধ্যশিক্ষা পর্ষদে ২০২৪ সালে শান্তির বাজার মহকুমা থেকে সেরা দশের মধ্যে স্থানাধীকারীদের সংবর্ধনা প্রদানকরাহয়। বিগত দিনেও শান্তির বাজার পূর্তদপ্তর এইধরনের অনুষ্ঠানের আয়োজনকরেছেন। এইবরছর ত্রিপুরা মধ্যশিক্ষা পর্ষদের মাধ্যমিকের ফলাফলে শান্তির বাজার সানফ্লাওয়ার ইংলিশ মিডিয়াম স্কুল থেকে সেরা দশের মধ্যে ৪ জন রয়েছে ও জোলাইবাড়ী থেকে একজন ছাত্র রয়েছে। এরমধ্যে সানফ্লাওয়ার ইংলিশ মিডিয়ামে সেরা দশেরমধ্যে সমগ্র ত্রিপুরার মধ্যে প্রথম ও দ্বীতিয় স্থানাধিকারী রয়েছে। এই ৫ জন ছাত্র ছাত্রীদের লেখাপরায় উৎসাহ প্রদানের লক্ষ্যে শান্তির বাজার পূর্ত দপ্তরের এক্সিউটিভ তাপস মারাক ও এস ডি ও প্রবীর বরন দাসের উদ্দ্যোগে এক সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করাহয়। পূর্ত দপ্তরের অফিসের কনফারেন্সহলে এই অনুষ্ঠান অনুষ্ঠীত করাহয়। আজকের অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন শান্তির বাজার বিধানসভা কেন্দ্রের বিধায়ক প্রমোদ রিয়াং। প্রধান অতিথির পাশাপাশি উপস্থিত ছিলেন শান্তির বাজার পৌর পরিষদের চেয়ারম্যান সপ্না বৈদ্য, সানফ্লাওয়ার ইংলিশ মিডিয়াম স্কুলের প্রিন্সিপল গোপাল চন্দ্র মল্লিক, শান্তির বাজার পূর্ত দপ্তরের এক্সিউটিভ তাপস মারাক, শান্তির বাজার পূর্ত দপ্তরের এস ডি ও প্রবীর বরন দাস সহ অন্যান্যরা। অনুষ্ঠানে বক্তব্যরাখতেগিয়ে বক্তারা সারা ত্রিপুরার মধ্যে সানফ্লাওয়ার ইংলিশ মিডিয়াম স্কুলের ফলাফলের জন্য বিদ্যালয়ের প্রিন্সিপল ও বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের ধন্যবাদ জানান। বক্তারা জানান আগে সকলে জানতেন আগরতলায় গেলে ভালো লেখাপড়া হয় কিন্তু বিগত দিনের ফলাফল ও এই বছরের ফলাফলে সকলে বুঝতেপেরেছে শহরের পাশাপাশি গ্রাম এলাকা লেখাপড়ায় পিছিয়ে নেই। সকলে বক্তবের মধ্যদিয়ে ছাত্র ছাত্রীদের আগামীদিনের উজ্বল ভবিষ্যৎ কামনাকরেন। বক্তার জানান এখনকার যুবক যুবতিরা আগামীদিনে ডাক্তার বা ইঞ্জিনায়ার হবার প্রবনতা বেশিথাকে। একজন সফল চিকিৎসক হতেগেলে ১২ বছর লেখা পরাকরতেহয়। তাই ডাক্তার ইঞ্জিনিয়ার হবার পাশাপাশি শিক্ষক, আই এ এস অফিসার, আই পি এস, টি পি এস, টি সি এস এইধরনের পদে কাজকরার জন্য উৎসাহিত হতেহবে। অনুষ্ঠানে বক্তাদের বক্তব্যশেষে কৃতি ছাত্র ছাত্রীদের সংবর্ধনা প্রদান করাহয়। অবশেষে কৃতি ছাত্র ছাত্রীদের আগামীদিনের কি হতেচায় তা নিয়ে আলোচনা করাহয়। বক্তাদের বক্তব্য অনুযায়ী কৃতি ৫ জন ছাত্র ছাত্রীর মধ্যে তিন দুইজন ছাত্র আগামীদিনে ডাক্তার ও একজন ইঞ্জিনিয়ার হবার পরিকল্পনা নিয়েছে। বাকি দুইজন বেতিক্রম পরিকল্পনা হাতেনিয়েছে। এদেরমধ্যে জোলাইবাড়ী দ্বাদশশ্রেনী বিদ্যালয় থেকে সেরা দশের মধ্যে নবমস্থান অর্জনকারী রাজেশ দোবনাথ ইন্ডিয়ান এয়ার ফোজে কাজ করার ইচ্ছা প্রকাশ করে ও সানফ্লাওয়ার ইংলিশ মিডিয়াম স্কুল থেকে সেরা দশের মধ্যে সপ্তম স্থান অর্জনকারী ছাত্রী তপলিনা দত্ত আগামীদিনে পলিটিক্স করার সপ্নদেখে সামনের দিকে এগিয়েযাচ্ছে বলে জানায়। এই দুই ছাত্র ছাত্রীর বেতিক্রমী চিন্তাভাবনাকে সকলে সাধুবাদ জানিয়েছেন। সকলে এদের আশাপূরনের জন্য ও উজ্বল ভবিষ্যৎতের কামনাকরেছেন। শান্তির বাজার পূর্ত দপ্তরের উদ্দ্যোগে এইধরনের অভাবনীয় উদ্যোগ দেখে সকলে পূ্র্তদপ্তরের আধিকারিকদের ধন্যবাদ জানিয়েছেন।

Related Post

Leave a Comment