Home রাজনীতি পেচারথল মন্ডলে বর্ষাকালীন মেগা বীজ বিতরণ অনুষ্ঠিত।

পেচারথল মন্ডলে বর্ষাকালীন মেগা বীজ বিতরণ অনুষ্ঠিত।

by admin
0 comment 52 views

ধর্মনগর প্রতিনিধি। বিজেপি কিষান মোর্চার উদ্যোগে এবং কৃষিবিজ্ঞান কেন্দ্র ঊনকোটি জেলার ব্যবস্থাপনায় ভারত সরকারের নর্থইস্ট কম্পনেন্ট প্রজেক্ট এর সহায়তায় পেচারথল মন্ডলের উগলছড়া বাজারেএক মেগা বীজ বিতরণ সভা অনুষ্ঠিত হয়। প্রদীপ প্রজ্বলন করে বীজ বিতরণ সভার উদ্বোধন করেন ত্রিপুরা সরকারের মাননীয়া মন্ত্রী শ্রীমতি সান্তনা চাকমা মহাশয়া উপস্থিত ছিলেন বিজেপি কিষান মোর্চা রাজ্য সভাপতি শ্রী প্রদীপ বরণ রায় ঊনকোটি জেলা কৃষিবিজ্ঞান কেন্দ্রের উদ্যান বিশেষজ্ঞ ডঃ রতন দাস ঊনকোটি জেলা পরিষদ কৃষি কমিটির চেয়ারম্যান শুভেন্দু দাস ঊনকোটি জেলা ফারমার্স ক্লাবসের কো-অর্ডিনেটর তথা কুমারঘাট পঞ্চায়েত সমিতির ভাইস চেয়ারম্যান মিলন দে প্রাক্তন কৃষি তত্ত্বাবধায়ক প্রতাপ চন্দ্র দাস প্রমূখ। সভায় স্বাগত ভাষণ রাখেন উদ্যান বিজ্ঞানী ডঃ রতন দাস ডঃ দাস তার ভাষনে কৃষিবিজ্ঞান কেন্দ্র কি এবং কেন তার বিস্তৃত আলোচনা করেন এবং কৃষকের সহায়তায় কৃষিবিজ্ঞান কেন্দ্র ঊনকোটি নিরন্তর প্রয়াস চালিয়ে যাবে বলে তিনি কথা দেন। কিষান মোর্চার রাজ্য সভাপতি তথা অল ত্রিপুরা ফারমার্স ক্লাবসের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি এবং ভারতীয় কৃষি অনুসন্ধান পর্ষদ এর সংস্থান ব্যবস্থাপনা সদস্য শ্রী প্রদীপ বরণ রায় উনার ভাষণে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি জির ত্রিপুরার কৃষকের প্রতি যে অবদান তার বিস্তৃত আলোচনা করেন। প্রধান অতিথির ভাষণে মাননীয়া মন্ত্রী শ্রী মতি সান্তনা চাকমা বলেন সরকার কৃষকের প্রতি অত্যন্ত সহানুভূতিশীল এবং প্রতিনিয়ত গ্রামের উন্নয়নে সরকার কাজ করে চলেছে আগামী দিনে কোন কৃষকের কোন অসুবিধা হলে সাথে সাথে সংশ্লিষ্ট দপ্তর তথা মাননীয় মন্ত্রী সাথে যোগাযোগ করতে বলেন। সভায় প্রায় পাঁচশত কৃষক কে ৮ প্রজাতি করে বর্ষাকালী সবজি বীজ বিতরণ করা হয়। সভায় মহিলা কৃষকের উপস্থিতি ছিল লক্ষণীয়। পরবর্তী বীজ বিতরণ সভা অনুষ্ঠিত হয় পাবিয়াছড়া মন্ডলের মাছমারা কমিউনিটি হলে সেখানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কিষান মোর্চার রাজ্য সভাপতি শ্রী প্রদীপ বরণ রায় , কৃষিবিজ্ঞান কেন্দ্র ঊনকোটি জেলার উদ্যান বিশেষজ্ঞ ডঃ রতন দাস প্রাক্তন কৃষি তত্ত্বাবধায়ক প্রতাপ চন্দ্র দাস ঊনকোটি জেলা ফারমার্স ক্লাবসের কো-অর্ডিনেটর মিলন কান্তিতে প্রমুখ। সেখানে চারশত কৃষকের মধ্যে প্রত্যেক কৃষককে আট প্রজাতির বর্ষাকালীন সবজি বীজ বিতরণ করা হয়।

Related Post

Leave a Comment