Home ত্রিপুরা বামুটিয়া বিধানসভার রাঙ্গুটিয়া গ্রামের প্রাচীন ব্যক্তি অধীর চন্দ্র সাহা আজ সকালে নিজ বাসভবনে মৃত্যুবরণ করেন।

বামুটিয়া বিধানসভার রাঙ্গুটিয়া গ্রামের প্রাচীন ব্যক্তি অধীর চন্দ্র সাহা আজ সকালে নিজ বাসভবনে মৃত্যুবরণ করেন।

by admin
0 comment 65 views

বামুটিয়া বিধানসভার রাঙ্গুটিয়া গ্রামের প্রাচীন ব্যক্তি অধীর চন্দ্র সাহা আজ সকালে নিজ বাসভবনে মৃত্যুবরণ করেন। মৃত্যু কালে বয়স হয়েছিল ৮৫ বছর। উনার স্ত্রী প্রয়াত হয়েছেন কয়েক বছর আগে। মৃত্যুকালে এক ছেলে দুই মেয়ে সহ বহু আত্মীয়-স্বজন রেখে গেছেন। প্রয়াত সাহা ছিলেন একাত্তরের বীর মুক্তিযোদ্ধা। বাংলাদেশের স্বাধীনতার জন্য উনার অবদান আছে। জানা গেছে ওনার নেতৃত্বে বেশ কয়েকজন তৎকালীন সময়ে মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করেন। উনার মৃত্যু সংবাদ পেয়ে আশেপাশে এলাকার বহু মানুষ উনার বাসভবনের জড়ো হন উনাকে শেষ দেখার জন্য। এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে শুধু মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ নয় ভারত বাংলা সীমান্তে উনার বাড়ি থাকার দরুন বাংলাদেশী চোর ডাকাতের বিরুদ্ধে লড়তে হয়েছে বহুবার। চুরি ডাকাতি বন্ধ করতে তৎকালীন সময়ে উনার ভূমিকা ছিল অপরিসীম। মানুষের উপকার করাই ছিল উনার জীবনের ব্রত। সারা জীবন তিনি অবাম রাজনীতির সঙ্গে জড়িত ছিলেন। কংগ্রেস জমানায় তিনি সক্রিয় কংগ্রেস কর্মী ছিলেন। কংগ্রেসের বহু আন্দোলনে তিনি পড়িতে ছিলেন। বয়সের দরুন বর্তমানে সক্রিয় রাজনীতি থেকে দূরে ছিলেন। অধীর সাহার মৃত্যুর সংবাদে এলাকার দল মত নির্বিশেষে শোক প্রকাশ করেন। শাসক দলের মন্ডলের সহ-সভাপতি নারায়ন সাহা, ৩নং বুথ সভাপতি সুশীল সাহা, পঞ্চায়েত প্রধান প্রাক্তন মন্ত্রী প্রকাশ দাস, প্রাক্তন বিধায়ক কৃষ্ণধন দাস, এলাকার সমাজসেবী প্রদীপ নন্দী, সমাজসেবী ও সাংবাদিক বাদল চন্দ্র দাস গভীর শোক প্রকাশ করেন এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করেন। আজই উনার নশ্বর দেহ দূর্গাবাড়ী শ্মশানে সৎকার করা হয়। নশ্বর দেহ পঞ্চভুতে বিলীন হলেও উনি থাকবেন বামুটিয়াবাসীর মনের মনিকোঠায়। সমগ্র বামুটিয়া সুখের ছায়া বিরাজ করছে অধীর সাহার মৃত্যুতে।

Related Post

Leave a Comment