Home ত্রিপুরা তেলিয়ামুড়া পৌরবাসীদের দীর্ঘদিনের মূল সমস্যা সমাধানে এগিয়ে চলেছে দ্রুতগতিতে।

তেলিয়ামুড়া পৌরবাসীদের দীর্ঘদিনের মূল সমস্যা সমাধানে এগিয়ে চলেছে দ্রুতগতিতে।

by admin
0 comment 60 views

প্রতিনিধি, তেলিয়ামুড়া।,১৯জানুয়ারি। তেলিয়ামুড়া পৌর পরিষদ এলাকার নাগরিকদের অন্যতম প্রধান সমস্যা অচিরেই সমাধান হওয়ার পথে। এক্ষেত্রে তেলিয়ামুড়ার বিধায়িকা তথা রাজ্য বিধানসভার মুখ্য সচেতক কল্যাণীরয়ের সক্রিয়তা এবং পৌর পরিষদের উদ্যোগেই হতে চলেছে মূল সমস্যার।তেলিয়ামুড়া পৌর পরিষদ এলাকার নাগরিকদের অন্যতম প্রধান সমস্যা পানীয় জলের। অটল জলধারা প্রকল্প চালু হওয়ার পর এই সমস্যা আরো বেড়েছে। তেলিয়ামুড়া পৌর পরিষদ এলাকায় 6000 এর উপর পরিবার রয়েছে। পৌর পরিষদ এলাকাতে রয়েছে দুইটি ওভারহেড ট্যাংক। সুকান্ত পল্লীতে খোয়াই নদীতে ইনটেক ওয়াল রয়েছে। সেখান থেকে পাইপ যোগে কামরাজ ময়দানে ওয়াটার ট্রিটমেন্ট প্লান্টে জল পরিশোধিত হয়ে তিনটি ওভারহেড ট্যাংক থেকে বাড়ি বাড়ি জল সরবরাহ করা হচ্ছে। সুকান্ত পল্লীতে ইন্টেক ওয়াল টিতে নদীতে বালুর প্রলেপ জমে যাওয়ার কারণে এবং চাকমা ঘাটে খোয়াই বেরিজের থেকে জল আটকে দেওয়ার কারণে এই ইনটেক ওয়ালে জল জমতে পারে না। যার ফলে তেলিয়ামুড়ার পৌরবাসীদের ঘরে ঘরেই জলের সমস্যা দিন দিন বেড়েই চলেছে। সকাল বিকাল দুবেলাতেই অপেক্ষায় থাকতে হয় কখন জল আসবে। জল আসলেও কতটুকু সময় থাকবে তারও কোন গ্যারান্টি নেই। সকালে কিছুক্ষণের জন্য আসলেও বিকেলবেলা জলের দেখা নেই। এই সমস্যা দীর্ঘ বছর ধরে তেলিয়ামুড়া পৌরবাসী ভোগ করে আসছে। তবে তেলিয়ামুড়া পৌর পরিষদ বাসীদের এই সমস্যা অচিরেই সমাধান হতে চলেছে। ২০১৮ সালে বিজেপি সরকার আসার পর তৎকালীন তেলিয়ামুড়া পৌর পরিষদ কর্তৃপক্ষ উদ্যোগ নেয় তেলিয়ামুড়া বাসির এই প্রধান সমস্যা কে সমাধান করতে। পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয় চাকমাঘাট ব্যারেজের গেটের অপর পাশে যেদিকে জল জমা রয়েছে সেখানে একটি ইনটেক ওয়াল তৈরি করে ট্রিটমেন্ট প্লান্টে জল আনার। এর জন্য বরাদ্দ হয়েছে ৫ কোটি টাকা। চাকমা ঘাট বেরিজ এর পাশেই খোয়াই নদীতে বর্তমানে চলছে ইনটাক ওয়াল তৈরি করার কাজ। ইতিমধ্যেই ইনটেক ওয়াল নির্মাণের কাজ প্রায় 70% ই হয়ে গেছে বলে জানান নির্মাণকারী সংস্থা। এর কাজ শেষ হলেই শুরু হবে পাইপলাইন পিছানোর কাজ। এ ব্যাপারে তেলিয়ামুড়া বিধানসভার বিধায়িকা তথা রাজ্য বিধানসভার মুখ্য সচেতক কল্যাণী সাহা রায় আশা ব্যক্ত করেন আগামী আর কিছুদিনের মধ্যেই তেলিয়ামুড়া পৌরবাসীদের যে প্রধান সমস্যা পানীয় জলের তার সমাধান হবে। এ ব্যাপারে শ্রীমতি রায় প্রকল্পটি র বরাত প্রাপ্ত ঠিকাদার সংস্থার ও কাজের গুণগত মান এবং যেভাবে সংস্থা দিনে রাতে কাজ করে চলেছে তারও প্রশংসা করেন। এবং আরো বলেন, তেলিয়ামুড়া বাসির ঘরে ঘরে জল পৌঁছে দেওয়া আমাদের অন্যতম লক্ষ্য। কিছুদিনের মধ্যে সেই লক্ষ্যে আমরা সফল হব। তেলিয়ামুড়া বাসীর মূল সমস্যা সমাধানে সকলে যেভাবে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিচ্ছে তার ও প্রশংসা করেন। প্রকল্পটি রূপায়নে যেভাবে এগিয়ে চলেছে তাতে নিজেরও খুশি ব্যক্ত করেন পুরো পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান রূপক সরকার।

Related Post

Leave a Comment