Home ত্রিপুরা ধর্মনগরের লিও ক্লাব আয়োজিত ‘Ink & Intellect’ অনুষ্ঠান বিতর্কের সাথে বৌদ্ধিক আলোচনাচক্র।

ধর্মনগরের লিও ক্লাব আয়োজিত ‘Ink & Intellect’ অনুষ্ঠান বিতর্কের সাথে বৌদ্ধিক আলোচনাচক্র।

by admin
0 comment 123 views

ধর্মনগরের লিও ক্লাব, বুদ্ধিবৃত্তিক বাগ্মিতা বৃদ্ধির প্রচেষ্টায় “Ink & Intellect” নামক একটি উদ্দীপক বিতর্কের আয়োজন করে৷ বৃক্ষে জলসিঞ্চনের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের উদ্ভোদন করেম
ত্রিপুরা বিধানসভার অধ্যক্ষ বিশ্ববন্ধু সেন। অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ধর্মনগর পুরোপরিষদের চেয়ারপার্সন প্রদ্যুত দে সরকার, ডিস্ট্রিক্ট এডুকেশন অফিসার সুখময় নাথ এবং লায়ন্স ক্লাবের প্রাক্তন ডিস্ট্রিক্ট গভর্নর লায়ন লিওন শুভঙ্কর সেন।
ধর্মনগর মিউনিসিপ্যাল কাউন্সিলের আটটি স্কুলের ছাত্ররা “প্রযুক্তি কি সৃজনশীলতাকে হত্যা করছে?” এই বিষয়ের উপর একটি উত্সাহী বিতর্কে লিপ্ত হওয়ার সময় ইভেন্টের হৃদয় উন্মোচিত হয়। পাশাপাশি
অনুষ্ঠানে একটি সাংস্কৃতিক ছন্দ দান করেন শিল্পী সংহিতা চৌধুরী, অদিতি নাথ এবং ‘ডান্স ভার্স’ টিম মনোমুগ্ধকর পরিবেশনার মাধ্যমে।
অনুষ্ঠানে একটি ওপেন কুইজও আয়োজন করা হয়, যেখানে উপস্থিত সমস্ত স্কুলের ছাত্র-ছাত্রীরা এবং দর্শক মন্ডলী উৎসাহের সঙ্গে অংশগ্রহণ করেন। ধর্মনগর সরকারি বালিকা বিদ্যালয়ের ছাত্রী সাবিনা পারভিন রলিকে পুরস্কৃত করা হয় মোশনের জন্য টীমের পক্ষ থেকে সেরা বক্তা হিসাবে এবং ত্রিপুরেশ্বরী শিশু তীর্থ থেকে অমর্ত্য দাসকে মোশনের বিরুদ্ধে টীমের পক্ষ সেরা বক্তা হিসাবে পুরষ্কার প্রদান করা হয়। বিজয়ীদের নগদ পুরস্কার দিয়ে সম্মানিত করা হয়।
ধর্মনগরের লিও ক্লাবের উদ্দেশ্যে বিশ্ববন্ধু সেন বলেনএি উদ্যোগ একটি দুর্দান্ত সাফল্য হিসাবে প্রমাণিত হয়েছে, যা বক্তৃতার শিক্ষাগত ল্যান্ডস্কেপে উল্লেখযোগ্যভাবে অবদান রেখেছে। “Ink & Intellect ” শুধুমাত্র বুদ্ধিবৃত্তিক আদান-প্রদানের জন্য একটি প্ল্যাটফর্ম প্রদান করেনি বরং ধর্মনগরের সমৃদ্ধ সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যও উদযাপন করেছে।

Related Post

Leave a Comment